‘আমার হাসিতেই রয়েছো তুমি’

ঠিক একবছর আগের ঘটনা। ২০১৮ সালের সেটাও ছিল এক ২৪ ফেব্রুয়ারি। লক্ষ লক্ষ ভক্তকে স্তম্ভিত করে সংবাদমাধ্যম জুড়ে প্রচার হতে থাকে বলিউডের অভিনেত্রী শ্রীদেবীর আকস্মিক মৃত্যুর খবর। দুবাইতে এক আত্মীয়ের বিয়েতে গিয়ে হোটেলের বাথটবে ডুবে মৃত্যু হয় তার। এই খবর শোনার পর গোটা দেশের সঙ্গে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়ে বলিউডও। তবে শ্রীদেবীর মৃত্যুতে সবচেয়ে বেশি ভেঙে পড়তে দেখা যায় তার বড় মেয়ে জাহ্নবীকে। শ্রীদেবীর মৃত্যুর কিছুমাস পরেই জাহ্নবীর প্রথম ছবি ‘‌ধড়ক’‌ মুক্তি পায়।

শ্রীদেবীর মৃত্যুর একবছর অতিক্রান্ত। তার মৃত্যু শোক কিছুটা হলেও কাটিয়ে উঠেছে পরিবার। এ বছর ২৪ ফেব্রুয়ারি অভিনেত্রীর প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষ্যে জাহ্নবী তার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে হৃদয় ছুঁয়ে যাওয়া পোস্ট করলেন। হাতে হাত রাখা একটি ছবি পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, ‘‌আমার মন সবসময়ই ভারী হয়ে থাকে।

কিন্তু তাও আমি সর্বদা হাসি, কারণ ওই হাসিতেই তুমি রয়েছো।’‌ এই পোস্টের পর সোনম কাপুর, করণ জোহার এবং মণিশ মালহোত্রা সমবেদনা জানান শ্রীদেবীর মেয়েকে।

শ্রীদেবীর হঠাৎ এই চলে যাওয়া যেন আজও দুঃস্বপ্নের মতোই থেকে গিয়েছে হিন্দি চলচ্চিত্রের ভক্তদের কাছে। মাত্র চার বছর বয়সে সিনেমায় পা রাখেন শ্রীদেবী। শিশুশিল্পী হিসাবে বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করার পর, শ্রীদেবী ১৯৭৬ সালে তামিল ছবিতে প্রথম রজনীকান্ত ও কমল হাসানের সহ–অভিনেত্রী হিসেবে অভিনয় করেছিলেন। ভারতীয় চলচ্চিত্রের প্রথম মহিলা সুপারস্টার হিসেবে পরিচিত শ্রীদেবী, তামিল, তেলুগু, মালয়ালাম এবং হিন্দি ভাষায় তার ৫০ বছরের জীবনে ৩০০টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। শ্রীদেবীর মৃত্যুর পর ‘মম’‌ সিনেমায় তার অভিনয়ের জন্য তাকে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর জাতীয় পুরস্কার প্রদান করা হয়।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: