ভাইরাল ভিডিও: ‘গোপন রাখতে হয় এমন সম্পর্কে না জড়ানোই উত্তম’

যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইও রাজ্যের ক্লিভল্যান্ডে থাকেন ৯০ বছর বয়সি রেগিনা ব্রেট৷ একটি ভিডিওতে তিনি সুন্দর জীবনের জন্য ৩৩টি পরামর্শ দিয়েছেন৷ এই গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শগুলো এখন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল৷

নবতিপর রেগিনা ব্রেট জীবনকে সবদিক থেকেই সুন্দর মনে করেন৷ জীবনকে দেখার তাঁর দৃষ্টিভঙ্গি আপনার জীবনকেও বদলে দিতে পারে৷ ‘লিফটার ইউকে’ তাঁকে নিয়ে একটি ভিডিও নির্মাণ করেছে, যেখানে জীবন নিয়ে ৩৩টি পরামর্শ দিয়েছেন তিনি৷ এই প্রতিবেদনে কয়েকটি উল্লেখ করা হলো৷ বাকিগুলো জেনে নিন ভিডিওতে৷

তাঁর গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শগুলো হলো: ‘‘জীবন কখনো কখনো কষ্টকর, কিন্তু জীবন উপভোগ্য৷ যখনই জীবনের কোনো একটা পর্যায়ে এসে থমকে যাবে, পরের পদক্ষেপটার কথা ভাববে৷ অন্যকে ঘৃণা করে জীবনের মূল্যবান সময় নষ্ট করার চেয়ে এগিয়ে যাওয়া উত্তম৷ জীবনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেয়ার দরকার নেই৷ প্রতিটি যুক্তিতে তোমাকে জিততেই হবে, এমন ভাবার কোনো মানে নেই৷ একা কাঁদার চেয়ে অন্যের সঙ্গে দুঃখ ভাগ করে নিলে কষ্ট অনেক কমে যায়৷ মাঝে মাঝে ঈশ্বরের প্রতি রাগ প্রকাশ করায় কোনো গ্লানি নেই৷ অবসরের জন্য প্রত্যেকের সঞ্চয় করা উচিত৷ অতীতের দুঃসহ স্মৃতিগুলোকে সুখস্মৃতি ভেবে বর্তমানকে সুন্দর করে তোলো, তোমার বর্তমানকে অতীতের স্মৃতি দিয়ে নষ্ট করো না৷ সন্তানদের সামনে কান্নায় কোনো গ্লানি থাকা উচিত নয়৷ অন্যদের সঙ্গে নিজের জীবনের তুলনা করতে যেয়ো না, কেননা অন্যের জীবনের পুরো গল্পটা তোমার জানা নেই৷ কোনো সম্পর্ক যদি গোপন রাখতে হয়, তবে সে সম্পর্কে না জড়ানোই উত্তম৷’’
২০১৮ সালের ১৮ ডিসেম্বর ভিডিওটি ফেসবুকে পোস্ট করার পর এ পর্যন্ত এটি দেখা হয়েছে ১ কোটি ৭০ লাখ বার৷ শেয়ার হয়েছে ৫ লাখ ৪২ হাজার বার৷ ভিডিওটি অনেককেই অনুপ্রাণিত করেছে বলে মন্তব্য করেছেন দর্শকরা৷

এখনো কি তাঁকে ভালোবাসেন?
প্রেমের সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পরও যদি ছেলে বা মেয়েটি পুরনো ভালোবাসার মানুষকে লক্ষ্য করে জোরে জোরে বকাবকি বা রাগের কথা বলে, তাহলে বুঝতে হবে যে সে তার প্রেমিক বা প্রেমিকাকে কিছুতেই ভুলতে পারছে না৷ অন্যদিকে কেউ যদি স্বাভাবিকভাবে কথা বলে, বুঝতে হবে যে পুরনো সম্পর্কটা তার কাছে চূড়ান্তভাবেই শেষ হয়ে গেছে৷ জানান জার্মানির বন বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞানীরা, যা প্রকাশ হয় ‘পার্সোনাল রিলেশনশিপ’ ম্যাগাজিনে৷

বিরহে পুরুষরা বেশি কষ্ট পায়
ডিভোর্স, আলাদা থাকা বা মৃত্যু – যে কোনো কারণে বিবাহিত জীবনের ইতি ঘটলে স্ত্রীর তুলনায় স্বামী কষ্টে বেশি ভোগে৷ এমনকি এ কারণে বয়স্ক স্বামীর মৃত্যুও এগিয়ে আসতে পারে৷ অ্যামেরিকার মায়ামি বিশ্ববিদ্যালয়ের করা একটি গবেষণা থেকে জানা গেছে এ তথ্য৷ গবেষণার ফলাফলটি প্রকাশ হয়েছে ‘স্যোশাল সাইন্স অ্যান্ড মেডিসিন’ ম্যাগাজিনে৷

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: