আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে আমলার বিদায়

জোহানেসবার্গ, ৯ আগস্ট, ২০১৯ (বাসস/এএফপি) : হঠাৎ করেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েলেন দক্ষিণ আফ্রিকার দারকা ব্যাটসম্যান হাশিম আমলা। স্বদেশী ফাস্ট বোলার ডেল স্টেইন টেস্ট থেকে অবসর ঘোষণার কয়েক দিন পর বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বললেন লংগার ভার্সনে ট্রিপল সেঞ্চুরি করা দক্ষিণ আফ্রিকার একমাত্র ক্রিকেটার আমলা ।
১৫ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে ক্রিকেটের তিন ফর্মেটে মোট ৩৪৯ ম্যাচে ৫৫ সেঞ্চুরির মালিক ৩৬ বছর বয়সী আমলা বলেন তিনি আর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলবেন না।
গত সেমাবার টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করা রেকর্ড ভঙ্গকারী ফাস্ট বোলার স্টেইনের পদাঙ্ক অনুসরন করলেন আমলা। স্টেইন অবশ্য সিমিত ওভারের ক্রিকেট চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।
আমলার সাবেক সতীর্থ এবি ডি ভিলিয়ার্স স্কাই স্পোর্টসকে বলেন, ‘তাদের অভাব অনুভূত হবে। দক্ষিণ আফ্রিকার সেরা খেলোয়াড়দের মধ্যে দু’জন ছিলেন তারা।’
তিনি আরো বলেন, ‘হাশিম একটা বড় বিস্ময়। আমি তাকে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের একজন হয়ে উঠতে দেখেছি।’
আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের শুরুতে তার টেকনিক নিয়ে সমালোচনা থাকলেও সেটা কাটিয়ে উঠে দক্ষিণ আফ্রিকার সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজনে পরিণত হয়েছিলেন ডান হাতি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান আমলা।
ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১২ সালে ওভাল ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর অপরাজিত ৩১১ রান সহ ৫৫টি সেঞ্চুরি করেছেন তিনি।
ইমলা টেস্ট ক্রিকেটে ১২৪ ম্যাচে ৪৬.৬৪ গড়ে ৯২৮২ এবং ওয়ানডে ক্রিকেটে ১৮১ ম্যাচে ৪৯.৪৬ গড়ে ৮১১৩ রান করেছেন।
এ ছাড়া আন্তর্জাতিক টি-২০তে ৩৩.৬০ গড়ে ৪৪ ম্যাচে তার রান সংখ্যা ১২৭৭।
টেস্ট ক্রিকেটে চারটি ডাবলসহ ২৮টি এবং ওয়ানডে ক্রিকেটে ২৭টি সেঞ্চুরির মালিক আমলা।
আমলা বলেন, ‘পথ চলায় যারা সাহায্য করেছেন তাদের সকলকে ধন্যবাদ।’
ভারতে বিপক্ষে কোলকাতায় ২০০৫/০৫ মৌসুমে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। তবে অভিষেক ম্যাচে তিনি মাত্র ২৪ ও ২ রান করেন।
একই বছর হোম সিরিজে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুই টেস্টের চার ইনিংসে মাত্র ৩৬ রান করলে দল থেকে বাদ পড়েন আমলা।
এসময় তার কৌশল নিয়ে অনেকেই সমালোচনা করেন। তবে পরবর্তীতে নিজের কৌশলে পরিবর্তন এনে ১৫ মাস পর টেস্ট দলে ফিরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টে প্রথম সেঞ্চুরি পান তিনি। এরপর দলের নিয়মিত সদস্যে পরিনত হন এ তারকা ব্যাটসম্যান।
প্রথম দিকে একজন টেস্ট ব্যাটসম্যান হিসেবে বিবেচিত হওয়ার আমলার ওয়ানডে অভিষেক ঘটে ২০০৮ সালে। মানসম্মত স্ট্রোকের মাধ্যমে খুব তাড়াতাড়িই তিনি ওপেনিং ব্যাটসম্যানে পরিণত হন। সিমিত ওভারের ক্রিকেটে পরিনত হন একজন পাওযার হিটার হিসেবে। ২০১০-২০১৬ মৌসুমে ক্যারিয়ারে ফর্মের তুঙ্গে থাকার সময় টেস্ট ও ওয়ানডে উভয় ভার্সনে তার ব্যাটিং গড় ছিল প্রায় ৫০। ওয়ানডে ক্রিকেটে তার স্ট্রাইক রেট ছিল ৯০ প্লাস।
সাম্প্রতিক সময়ে অবশ্য তার ফর্মটা ভাল যাচ্ছিলো না এবং ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে তাকে বেশ ধুকতে হয়েছে।
টেস্ট ক্রিকেটে তার সর্বশেষ সেঞ্চুরিটি এসেছে ২০১৭ সালের অক্টোবরে এবং এরপর ওয়ানডে ক্রিকেটে শত রান করেছেন মাত্র দুটি।
ঘরোয়া ক্রিকেট চালিয়ে যাবেন আমলা। আগামী নভেম্বর নির্ধারিত মানসি সুপার লীগ টি-২০ টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় আসরে খেলবেন তিনি।
image_print