আফগানিস্তানে আফিমের রেকর্ড ফলন

আফগানিস্তানের আফিম-চাষিদের এ বছরটা বেশ পয়মন্ত। দেশটিতে এ বছর যেমন রেকর্ডপরিমাণ জমিতে আফিম আবাদ হয়েছে, তেমনি ফলনও বেড়েছে রেকর্ডপরিমাণ – ৮৭%!

তবে এই রেকর্ডে শুধু যে চাষিরা খুশি তা নয়, খুশি তালিবান জঙ্গিরাও। কারণ, তারাই মোট আফিম আবাদী জমির ৫৫%এর মালিক। এ থেকে এ বছর তাদের ট্যাঁকে আসতে পারে ১০৪ কোটি মার্কিন ডলার।

ইউএন অফিস অন ড্রাগ অ্যান্ড ক্রাইম (ইউএনওডিসি) এবং আফগানিস্তানের মাদক নিয়ন্ত্রণ মন্ত্রণালয়ের এক যৌথ জরিপে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে।

বুধবার প্রকাশিত জরিপে বলা হয়, ক্রমবর্ধমান অনিশ্চয়তা, সরকারের নিয়ন্ত্রণহীনতা ও দুর্নীতিই মাদক আবাদ প্রসারের মূল কারণ। এর পাশাপাশি রয়েছে বেকারত্ব ও অশিক্ষা।

জরিপে বলা হয়, এবার আফিমের সম্ভাব্য ফলন হবে নয় হাজার টন। গত বছর এর পরিমাণ ছিল ৪,৮০০ টন। ফলন বৃদ্ধির পরিমাণ ৮৭%। পাশাপাশি এবার আফিম চাষ হয়েছে ৬৩% বেশি অর্থাৎ ৩২৮,০০০ হেক্টর জমিতে।

জরিপ রিপোর্টে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়, আফিমের আবাদ ও ফলনের এই উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধির ফলে আফগানিস্তানে বিদ্রোহীদের তহবিলে বিপুল অর্থের যোগান আসবে এবং এর ফলে দেশে নতুন করে অস্থিরতা বাড়তে পারে। তাছাড়া অপেক্ষাকৃত কম দামে আরো উন্নত মানের হেরোইন বিশ্ববাজারে ছড়িয়ে পড়লে এর ব্যবহারও বেড়ে যাবে।

উল্লেখ্য, আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোতে ব্যাপকভাবে আফিমের চাষ হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে শীর্ষে আছে হেলমান্দ প্রদেশ। ওই প্রদেশের মোট আবাদী জমির ৪৪%এই আফিম চাষ করা হয়। সূত্র : জর্দান টাইমস

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.