ঈদে আড়ংয়ে ১৪০০ খণ্ডকালীন কর্মী নিয়োগ

চলে আসছে রমজান। তারপর-ই ঈদুল ফিতর। ঈদের সময় তৈরি পোশাক বিক্রয়ের দোকানগুলোতে বিক্রি যেমন বাড়ে, তেমনি পাল্লা দিয়ে বাড়ে ক্রেতাদের সমাগমও। ফলে এ সময় শুধু নিয়মিত লোকবল দিয়ে ক্রেতাদের বাড়তি ভিড় সামাল দেওয়া যেমন কষ্টসাধ্য, তেমনি সময়সাপেক্ষও।

ঈদের বেচাকেনা নির্বিঘ্ন করতে এবারের ঈদে রিটেইল চেইন শপ আড়ং তাদের বিভিন্ন আউটলেটে নিয়োগ দিচ্ছে প্রায় ১৪০০ খণ্ডকালীন বিক্রয়কর্মী।

আড়ংয়ের এই আউটলেটগুলোতে খণ্ডকালীন বিক্রয়কর্মী হিসেবে যোগ দিতে পারবেন নারী-পুরুষ উভয়েই। তবে আবেদনের ক্ষেত্রে পুরুষদের তুলনায় নারীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে আবেদন-প্রক্রিয়া, আবেদন করা যাবে আগামী ৫ জুন ২০১৬ পর্যন্ত।

আবেদনের যোগ্যতা
আড়ংয়ে খণ্ডকালীন বিক্রয়কর্মী হিসেবে আবেদনের জন্য আবেদনকারীকে কমপক্ষে এইচএসসি পাস হতে হবে। তবে এ ক্ষেত্রে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে স্নাতক অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা আবেদনের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন। আবেদনের জন্য আবেদনকারীর বয়স হতে হবে ১৮ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে। খণ্ডকালীন বিক্রয়কর্মী হিসেবে আবেদনের জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতার পাশাপাশি লাগবে বাড়তি কিছু যোগ্যতাও।

এ ব্যাপারে আড়ংয়ের চিফ অপারেটিং অফিসার মো. আবদুর রউফ বলেন, আড়ংয়ে খণ্ডকালীন কর্মী হিসেবে যোগ দিতে একজন আবেদনকারীকে তাঁর শিক্ষাগত যোগ্যতার পাশাপাশি স্মার্ট, সুন্দর বাচনভঙ্গি, ধৈর্যশীল এবং ক্রেতাদের কাছে পণ্য উপস্থাপনের ক্ষেত্রেও দক্ষ হতে হবে।

আবেদনের প্রক্রিয়া
খণ্ডকালীন কর্মী হিসেবে আড়ংয়ে যোগ দিতে আবেদনকারীকে আগামী ৫ জুন ২০১৬ তারিখের মধ্যে আড়ংয়ের যেকোনো আউটলেটে পূর্ণ জীবন বৃত্তান্ত জমা দিতে হবে। আউটলেট ছাড়া সরাসরি ঢাকার তেজগাঁওয়ে অবস্থিত আড়ংয়ের হেড অফিসে গিয়েও জীবনবৃত্তান্ত জমা দেওয়া যাবে।

চিঠিতে জীবনবৃত্তান্ত পাঠালে সে ক্ষেত্রে খামের ওপর বরাবর, সিনিয়র ম্যানেজার, মানবসম্পদ বিভাগ, আড়ং, আড়ং সেন্টার, ৩৪৬ তেজগাঁও বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১২০৮, এই ঠিকানায় পাঠাতে হবে।

এ ছাড়া ই-মেইলের মাধ্যমে জীবনবৃত্তান্ত পাঠিয়েও আবেদন করা যাবে।

নিয়োগ-প্রক্রিয়া
প্রাথমিকভাবে আবেদনপত্র যাচাই-বাছাই শেষে সেখান থেকে বাছাই করা প্রার্থীদের সাক্ষাৎকারের জন্য ডাকা হবে। সেখানে মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের এক দিনের একটি বিশেষ প্রশিক্ষণে অংশ নিতে হবে। প্রশিক্ষণ শেষে লিখিত পরীক্ষার মাধ্যমে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের খণ্ডকালীন কর্মী হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হবে।

বেতন ও অন্যান্য সুবিধা
খণ্ডকালীন কর্মী হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত প্রত্যেক কর্মীকে দৈনিক ঘণ্টাপ্রতি ৩৩ টাকা হারে বেতন দেওয়া হবে। ঈদের সময় একজন বিক্রয়কর্মীকে দৈনিক গড়ে প্রায় ১০ ঘণ্টা কাজ করতে হয়। সেই হিসাবে একজন খণ্ডকালীন কর্মী মাসে ১০ হাজার টাকার মতো আয় করতে পারেন বলে জানান মো. আবদুর রউফ।

বেতনের পাশাপাশি একজন কর্মীকে নিজের পছন্দমতো আউটলেটে পছন্দমতো সময়ে কাজের সুবিধা, ইফতারের সময় ইফতার, রাত ১০টার পর কাজ করতে হলে রাতের খাবার এমনকি রাতের ডিউটিতে প্রাপ্যতা সাপেক্ষে পরিবহন-সুবিধাও দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

মো. আবদুর রউফ আরও বলেন, খণ্ডকালীন কর্মীদের মধ্যে এ সময় যারা ভালো করবেন, তাদের পরবর্তী সময়ে স্থায়ীভাবে নিয়োগ দেওয়া হবে। সে ক্ষেত্রে প্রথম ছয় মাস প্রবেশনারি পিরিয়ড পার করার পর তাদের স্থায়ীভাবে আড়ংয়ে নিয়োগ দেওয়া হবে।

বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ
আড়ং সেন্টার
৩৪৬ তেজগাঁও বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১২০৮

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.