কাশ্মীর ইস্যু: পাকিস্তানের সীমানার ভেতরে ভারতের বোমা বর্ষণ

মঙ্গলবার ভোররাতে ভারতের বিমানবাহিনী লাইন অফ কন্ট্রোল (এলওসি) রেখা অতিক্রম করে পাকিস্তান শাসিত কাশ্মীরে বোমাবর্ষণ করেছে।
ভারতীয় বিমানবাহিনীর সূত্র উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে যে, পাকিস্তান শাসিত কাশ্মীরে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছে।
১২টি মিরেজ-২০০০ বোমারু বিমান এই অপারেশনে অংশ নিয়েছিল আর তারা নিয়ন্ত্রণ রেখার অন্যদিকে জঙ্গি ঘাঁটিগুলির ওপরে প্রায় এক হাজার কেজি বোমা বর্ষণ করেছে বলে ভারতীয় বিমান বাহিনীর ওই সূত্র এএনআই কে জানিয়েছে।

জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মোহম্মদের একটি কন্ট্রোল রুম, যার সাংকেতিক নাম আলফা-৩, সেটিকে ভারতীয় বাহিনী ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছে বলেও দাবী করা হচ্ছে।
ভারতীয় সময় ভোর সাড়ে তিনটের দিকে এই অপারেশন হয় বলে দাবি করেছে ভারতের বিমান বাহিনী।
পাকিস্তান সেনাবাহিনী স্বীকার করেছে যে মুজফ্ফরাবাদ সেক্টর দিয়ে ভারতীয় বিমান আকাশ-সীমা লঙ্ঘন করেছিল।

পাকিস্তানের সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গফুর জানিয়েছেন, তাদের বিমানবাহিনী সঙ্গে সঙ্গেই তাড়া করে ভারতীয় বিমানগুলিকে।
ভারতীয় বিমান থেকে যে বোমা ফেলা হয়েছিল তা বালাকোটের কাছে পড়েছে বলেও জানিয়েছেন মেজর জেনারেল গফুর।

ভারতীয় বিমান থেকে ফেলা বোমার টুকরোর একটি ছবিও টুইটারে শেয়ার করেছেন তিনি।
কোনও হতাহতের খবর কোনও পক্ষ থেকেই দাবী করা হয় নি।
জইশ-ই-মোহম্মদ ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারত শাসিত কাশ্মীরের পুলওয়ামায় কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনীর একটি কনভয়ের ওপরে হামলা চালিয়ে ৪০ জনের বেশী সি আর পি এফ সদস্যকে হত্যা করে বলে ওই সংগঠনটি নিজেরাই দাবী করেছিল।

তারপর থেকেই ভারতের নানা মহল থেকে দাবী উঠছিল যে ওই হামলার কড়া জবাব দেওয়া হোক।
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও বলেছিলেন ওই হামলা যারা করেছে, তারা বড় ভুল করেছে। এজন্য তাদের চরম মূল্য দিতে হবে।
এর আগে কাশ্মীরের উরিতে সেনা-ছাউনির ওপরে জঙ্গি হামলার পরেই ভারতীয় পদাতিক বাহিনী আন্তর্জাতিক সীমা লঙ্ঘন করে ‘সার্জিকাল স্ট্রাইক’ চালিয়েছিল। বিবিসি বাংলা।

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.