কে এই নিসের হামলাকারী

বিবিসি বাংলা।

শুধু বলা হয়েছে, সে ৩১ বছর বয়সী এক তরুণ, তিউনিসিয়ান বংশোদ্ভূত ফরাসী নাগরিক।

ফ্রান্সের সংবাদ মাধ্যমগুলোতে তার নাম বলা হচ্ছে, মোহাম্মদ লাওয়েজ বুলেল।

সে এই নিস শহরেই থাকতো। পুলিশের খাতাতেও তার নাম ছিলো কিন্তু সেটা ছিলো ছোটখাটো কিছু অপরাধর জন্যে।
কিন্তু যেসব মুসলিম তরুণ উগ্রপন্থার দিকে ঝুঁকে পড়েছিলো সেসব জিহাদিদের তালিকায় তার নাম ছিলো না।

ফরাসী একটি টেলিভিশন চ্যানেল বলছে, পুলিশ নিস শহরে তার বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে।

মর্মান্তিক এই হত্যাকাণ্ডের একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন তিনি প্রথমে ঘটনার গুরুত্বই বুঝতে পারেন নি।
এখনও পর্যন্ত কোন সংগঠন এই হামলার কৃতিত্ব দাবী করেনি।

পুলিশ ওই লরির ভেতর থেকে কিছু কাগজপত্র উদ্ধার করেছে। পুলিশের কাছে এটা এখনও পরিষ্কার নয় যে চালক একাই হামলা চালিয়েছে নাকি তার সহযোগী কেউ ছিলো।

খবরে বলা হচ্ছে, লরিটি দুদিন আগে আরেকটি শহর থেকে ভাড়া করা হয়েছিলো।
লরির ভেতর থেকে ড্রাইভিং লাইসেন্স, ক্রেডিট কার্ড এবং মোবাইল ফোনও উদ্ধার করা হয়েছে।

হামলাকারীর পিস্তলটি উদ্ধার করা হয়েছে। তবে লরিতে যেসব অস্ত্র পাওয়া গিয়েছিলো, পরে দেখা গেছে সেগুলো খেলনার।

ফলে অনেক বিশ্লেষক আশঙ্কা করছেন যে হামলার পেছনে কোনো জিহাদি গ্রুপও থাকতে পারে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.