ঘরের ভেতর ছোট্ট পুকুর

রাহুল সরকার |
পুকুর হলো বাথটাব— শুভ্রসফেদ বাথটাব। চাইলে বাথটাব নামের এই পুকুরটিকে ইচ্ছেমতো এদিক ওদিক সরাতে পারেন। এটাই নতুন কেতা। শুধু স্নানঘর নয়, ঘরের অন্যান্য জায়গায় বাথটাব রেখে যখন খুশি ডুব দিতে পারেন। তবে এ বাথটাব সাধারণ বাথটাব হলে হবে না। এ নড়ন উপযোগী বাথটাবের নাম হলো ফ্রি-স্ট্যান্ডিং বাথটাব। দৈনন্দিন শারীরিক ও মানসিক চাপ থেকে মুক্তি পেতে পাশ্চাত্যের অনেক ঘরেই দেখা মেলে এ ফ্রি-স্ট্যান্ডিং বাথটাবের।

সাধারণত বাড়ির মাস্টার বাথরুমে বাথটাব ব্যবহার করা হয়। বাথরুমের আয়তন অনুযায়ী বাথটাব সংযোজন করা হয়; কিন্তু ফ্রি-স্ট্যান্ডিং বাথটাব পুরনো এ ধারণাকে বদলে দিয়েছে। ফ্রি-স্ট্যান্ডিং বাথটাবের জন্য খুব বেশি জায়গারও প্রয়োজন নেই। পরিবার এবং অ্যাপার্টমেন্টগুলো যেভাবে ছোট হয়ে আসছে, ডিজাইনাররা বলছেন ফ্রি-স্ট্যান্ডিং বাথটাব যুগান্তকারী এক উদ্ভাবন এসব ছোট পরিসরের জন্য। তাই কী লিভিং রুমের ভেতর, কী শোয়ার ঘর— ঠিক খাটের পেছনেই সেট করুন ফ্রি-স্ট্যান্ডিং বাথটাব।

ফ্রি-স্ট্যান্ডিং বাথটাবের তিনদিকে থাকে তিনটি স্ট্যান্ড। কেউ কেউ এখন চারদিকেও প্যানেলে রাখছেন। ক্লফুট টাব ও ভিক্টোরিয়ান রোলটপ— এ রকম বাথটাবের মধ্যে পড়ে। খোঁজ নিলে আপনার মাপ অনুযায়ী বিভিন্ন আকারের বাথটাব পেয়ে যাবেন— গোল, ডিম্বাকৃতি, বাঁকানো কিংবা চৌকো।

বাথটাব বসানোর পর যেমন চান, তেমন করে সাজিয়ে নিতে পারেন। একরঙা কিংবা নানা রঙের মিশেল অথবা নানা মোটিফ। চোখ ধাঁধানো কিছু ফিচারও যোগ করতে পারেন। যোগ করুন স্টাইলিশ শাওয়ার।

ফ্রি-স্ট্যান্ডিং বাথটাবের চারপাশে রয়েছে ওয়াটারপ্রুফ সলিড সারফেস। অর্থাত্ নিশ্চিন্তে শোয়ার ঘরে নিয়ে যেতে পারেন বাথটাবটাকে। বেডরুমকে বাথরুম বানিয়ে আয়েশি ভঙ্গিতে উপভোগ করতে পারেন এইচডিটিভিতে প্রচারিত অনুষ্ঠান। বিছানার একপাশে রাখুন বাথটাবটি। দেয়ালের কাছাকাছিও রাখতে পারেন। ফ্রি-স্ট্যান্ডিং বাথটাবে কিছু লুকানো ড্রয়ার থাকে। যেখানে অনায়াসে টয়লেট্রিজ লুকিয়ে রাখতে পারেন, আবার প্রয়োজনমতো ব্যবহার করতে পারেন।

বাথটাবের পানিতে পছন্দমতো অ্যারোমাথেরাপি তেল কিংবা সুগন্ধি মিশিয়ে নিন। সুরভিত হয়ে উঠবে আশপাশ। অন্ধকার রুমে কয়েকটি মোমবাতি জ্বালিয়ে রাখতে পারেন বাথটাবের পাশে।

আর্দ্রতার কারণে বাথটাবে জীবাণু বেড়ে ওঠে সহজে। তাই নিয়মিত পরিষ্কার করতে ভুলবেন না। বণিক বার্তা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.