ঘুমানোর অঙ্গভঙ্গিই বলে দেবে আপনি কেমন মানুষ

জীবনের এক-তৃতীয়াংশ সময় নাকি মানুষ ঘুমিয়েই কাটিয়ে দেয়। চিকিৎসা বিজ্ঞান অনুসারে, প্রত্যেক মানুষের প্রতিদিন রাতে ৮ ঘণ্টা ঘুম দরকার। নইলে মেজাজ খিটখিটে থাকে। কিন্তু এই ঘুমেরও নাকি আবার আদব-কায়দা আছে।

সম্প্রতি এক জরিপে দেখা গেছে, প্রত্যেকেরই নাকি ঘুমের নিজস্ব ধরণ আছে । কেউ চিৎপাত হয়ে ঘুমায়। কেউ একেবারে গুটিসুটি মেরে, কেউ আবার পাশ ফিরে, আবার কেউ উল্টো হয়ে ঘুমায়।

তবে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মানুষ গুটিসুটি মেরে ঘুমাতেই বেশি পছন্দ করে। শতকরা ৪১ শতাংশ মানুষ গুটিসুটি মেরে ঘুমায়। ঘুম বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যারা এভাবে ঘুমায়, তারা স্বভাবে লাজুক-শান্ত ও অনুভূতিপ্রবণ। কিন্তু বাইরের দিকে তারা একটা রুক্ষ আবরণে পড়ে থাকে।

যারা চিৎপাত হয়ে ঘুমায়, তারা সবসময়ই খুব শান্ত। কিছুটা অলসও তারা। তবে খুব মিশুক। সবসময়ই হাসিখুশিতে মেতে থাকে আর অপরকে মাতিয়েও রাখে।

যারা আবার উল্টো হয়ে ঘুমায়, তারা স্বভাবে বন্ধুসুলভ। অসাধারণ ব্যক্তিত্বের অধিকারি। এরা আবেগপ্রবণ ও অনুভূতিপ্রবণ।

যদি আপনি নাক ডাকেন, তাহলে কিন্তু বলতেই হচ্ছে যে আপনি খুবই অ্যাগ্রেসিভ। পান থেকে চুন খসলেই বিরক্ত হন। একটু অল্পতেই রেগে যান।

অনেকে আবার একই রকম ধরণে রোজের পর রোজ ঘুমাতে ভালোবাসে। আর ঠিকমতো সেই পজিশনে সেট না হলে কিছুতেই যেন ঘুম আসে না। জরিপ বলছে, আসলে তারা একটা নির্দিষ্ট ছকে জীবনকে পেতে অভ্যস্ত। চেনা গণ্ডির বাইরে কিছু হলেই অস্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.