ছড়াকার-সাংবাদিক নূর মোহাম্মদ রফিকের ইন্তেকাল

চট্টগ্রামের প্রবীণ সাংবাদিক, খ্যাতিমান ছড়াকার নূর মোহাম্মদ রফিক (৭৪) গত ১৯ ফেব্রুয়ারি সোমবার চট্টগ্রাম মহানগরীর হালিশহর আনন্দবাজারে বোনের বাসায় ইন্তেকাল করেছন (ইন্নালিল্লাহি… রাজিউন)।

২০ ফেব্রুয়ারি) সকালে নূর মোহাম্মদ রফিকের মরদেহ চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে আনা হলে সাংবাদিক, সাহিত্য-সংস্কৃতিকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানায়। সেখানে প্রথম বাদ জোহর হালিশহরের বাড়ির পাশের মসজিদে দ্বিতীয় জানাজা শেষে তাঁকে স্থানীয় গোরস্থানে দাফন করা হয়।

চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিইউজে) ও চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের প্রবীণ সদস্য নূর মোহাম্মদ রফিক দীর্ঘদিন ধরে মুক্তিযুদ্ধকালীন ক্ষত এবং বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর গোলার আঘাতে নূর মোহাম্মদ রফিকের বাম পায়ে মারাত্মক জখম হয়। বঙ্গবন্ধু সরকার তাঁকে চিকিৎসার জন্য ফ্রান্সে পাঠান। চিকিৎসা পুরোপুরি শেষ হবার আগেই মাতৃভূমির টানে তিনি দেশে ফিরে আসেন। পায়ের ক্ষত নিয়ে ৪৭ বছর ধরে কষ্টকর জীবনযাপন করে আসছিলেন।

নূর মোহাম্মদ রফিকের জন্ম ১৯৪৪ সালে নগরীর হালিশহরে। আশির দশকে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী দৈনিক আজাদীতে যোগ দিয়ে সাংবাদিকতা পেশায় যুক্ত হন। এরপর দৈনিক পূর্বকোণ, ইত্তেফাক, নয়াবাংলাসহ বেশ কিছু দৈনিকে কাজ করেন।

তাঁর লেখা ও সম্পাদিত বইয়ের মধ্যে রয়েছে ‘চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষার অভিধান’, ‘চতুষ্পদে’ (কবিতা), ‘বত্রিশ লিমেরিক’, ‘ফান্দে পড়িয়া বগা’ (কৌতুক), ‘বিশ্ব মনুষ্য বসতি : আসন্ন সংকটকাল’ (প্রবন্ধ) উল্লেখযোগ্য।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.