থিংক ট্যাংক’ করছে বিএনপি

থিংক ট্যাংককরছে বিএনপি

17 Sep, 2015

দলের সমর্থক বুদ্ধিজীবীদের সমন্বয়ে একটি ‘থিংক ট্যাংক’ গঠন করছে বিএনপি। এ নিয়ে একটি খসড়া তৈরি করা হয়েছে। এর আলোকে গত রোববার বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের বৈঠকে একটি প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়।

বিএনপির একাধিক সূত্র জানায়, দল সমর্থক বুদ্ধিজীবীরা নানা সময়ে বিএনপিকে পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কিন্তু প্রতিষ্ঠার ৩৭ বছর হয়ে গেলেও দলের নিজস্ব কোনো গবেষণা সেল নেই। এই থিংক ট্যাংক গবেষণাধর্মী কাজ করবে। বিএনপির মহাসচিবের সঙ্গে পরামর্শ করে সমসাময়িক জাতীয় রাজনীতি ও বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে বিশ্লেষণ, পর্যবেক্ষণ তুলে ধরার পাশাপাশি দলের সম্ভাব্য করণীয় ঠিক করতে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেবে এই থিংক ট্যাংক। জাতীয় রাজনীতির বাইরে উপমহাদেশ ও আন্তর্জাতিক রাজনীতির গতি-প্রকৃতি বিশ্লেষণ করা, বিএনপির অবস্থান ও বক্তব্য ঠিক করার কাজও করবেন থিংক ট্যাংকের এই সদস্যরা। তবে তাঁরা কোনো সিদ্ধান্ত দেবেন না। নিজেদের পরামর্শ বিএনপির চেয়ারপারসনকে দেবেন। গবেষণামূলক কাজের মাধ্যমে বিএনপিকে যুগোপযোগী বাস্তবভিত্তিক পদক্ষেপ নিতে সহযোগিতা করা। এই গোষ্ঠীতে ১৬টি উপভাগ থাকবে। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, অর্থনীতি, আইটি, কৃষি, কূটনীতি—এ ধরনের খাতভিত্তিক বিভিন্ন গবেষণামূলক কাজও করবে থিংক ট্যাংক। সে আলোকে বিএনপির অবস্থান কী হওয়া উচিত এবং ক্ষমতায় গেলে বিএনপি কী কী করতে পারে বা করার ক্ষেত্র আছে—তা চিহ্নিত করবে।

0

বিএনপির সূত্র জানায়, গত রোববারের বৈঠকে এ ধরনের প্রতিবেদন উপস্থাপনের পর সবাই বিষয়টি নিয়ে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছেন। ওই প্রতিবেদনের কপি জ্যেষ্ঠ নেতাদের দেওয়া হবে নিজেদের পরামর্শ যোগ করার জন্য। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া লন্ডন থেকে দেশে ফেরার পর থিংক ট্যাংক গঠনের বিষয়টি চূড়ান্ত করা হবে।

ওই বৈঠকে উপস্থিত থাকা দুজন প্রথম আলোকে জানান, এখন পর্যন্ত থিংক ট্যাংকের কোনো কাঠামো চূড়ান্ত হয়নি। কারা থাকবেন তা-ও ঠিক হয়নি। তবে যাঁরা থাকবেন, তাঁরা অবশ্যই বিএনপির আদর্শের হতে হবে। তবে এখন কয়েকজন এ ধরনের কাজ করছেন।

পাশাপাশি ফেসবুক, টুইটারের মতো সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতেও দলকে সক্রিয় করতে চায় বিএনপি। এখন পর্যন্ত এই দলটির কোনো ফেসবুক পেইজ নেই। নেই টুইটার অ্যাকাউন্টও। সূত্র জানায়, গত রোববারের বৈঠকে এ বিষয়টিও গুরুত্ব পেয়েছে। কেউ কেউ এ জন্য তরুণদের পারিশ্রমিক দিয়ে কাজে লাগানোর পরামর্শ দিয়েছেন। এ জন্য আলাদা একটি দল গঠন করার চিন্তা আছে বিএনপিতে।

জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মাহবুবুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, এখনকার সময়ে বিশ্বের প্রায় সব বড় দলেরই থিংক ট্যাংক আছে। রাষ্ট্রনীতি প্রণয়ন, বাস্তবতার প্রেক্ষাপটে দল পরিচালনা ও কর্মসূচি প্রণয়নে তারা ভূমিকা রাখে। বিএনপিও এখন এ ধরনের থিংক ট্যাংকের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছে। এটি নিয়ে দলে আলোচনা হচ্ছে, থিংক ট্যাংক গঠনের চেষ্টাও হচ্ছে। এ থিংক ট্যাংক বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের রাজনৈতিক আদর্শের মধ্যে থাকবে।

উৎসঃ   প্রথম আলো

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.