নয় দলকে নিয়ে যেভাবে হবে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল অবশেষে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ এবং ওয়ান ডে ইন্টারন্যাশনাল লীগ আয়োজনের পরিকল্পনা অনুমোদন করেছে।

দু বছর ধরে চলা টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপে অংশ নেবে নয়টি টেস্ট খেলুড়ে দল। তারা মোট তিনটি করে টেস্ট সিরিজে অংশ নেবে, হোম এবং অ্যাওয়ে । যারা চুড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছাবে তাদের মধ্যে হবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ ফাইন্যাল।

এর পাশাপাশি ১৩ টি দলকে নিয়ে ২০২১ সাল থেকে একটি ওয়ান ডে ইন্টারন্যাশনাল লীগের পরিকল্পনাও ঘোষণা করেছে আইসিসি।

এর পাশাপাশি আইসিসি পরীক্ষামূলকভাবে চার দিনের টেস্ট ম্যাচ চালু করার পরিকল্পনাও অনুমোদন করেছে।

আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভিড রিচার্ডসন জানিয়েছেন, টেস্ট ক্রিকেট এখন ওয়ান ডে এবং টি-টুয়েন্টি ম্যাচের কারণে যে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে, সে কারণেই তারা টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের উদ্যোগ নিয়েছেন।

কিভাবে হবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ

২০১৯ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেট শেষ হওয়ার পর শুরু হবে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ। এর উদ্দেশ্য টেস্ট ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা বাড়ানো। এতে অংশ নেবে অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ, ইংল্যান্ড, ভারত, নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলংকা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

প্রতিটি সিরিজে অন্তত দুটি করে ম্যাচ হবে। প্রতিটি ম্যাচ পাঁচ দিন করে।

সেরা দুটি টিম ২০২১ সালের এপ্রিলে এটি প্লে-অফে অংশ নেবে। এর দুমাস পর ইংল্যান্ডে হবে ফাইন্যাল ম্যাচ।

জিম্বাবুয়ে, আফগানিস্তান এবং আয়ারল্যান্ড শুরুতে এই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপে অংশ নেয়ার সুযোগ পাচ্ছে না। তবে চার দিনের টেস্ট ম্যাচ চালু হলে তাদের বেশি করে টেস্ট ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা অর্জনের সুযোগ হবে।

বহু বছর ধরেই একটি টেস্ট লীগ চালুর জন্য পরিকল্পনা চলছিল। আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভিড রিচার্ডসন আশা করছেন এই লীগ চালু হওয়ার পর একটি সত্যিকারের চ্যাম্পিয়ন টেস্ট টিম তৈরি হবে।

টেস্টের জনপ্রিয়তা বাড়াতে ইতোমধ্যে চালু করা হয়েছে ডে-নাইট টেস্ট ম্যাচ। বিবিসি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.