‘পদ্মাবত’র ৩০০টি দৃশ্যে পরিবর্তন!

সঞ্জয়লীলা বানসালির পরিচালিত বহুল আলোচিত ও সমালোচিত ‘পদ্মাবতী’ ছবির নাম হয়ে গেছে ‘পদ্মাবত’। শোনা যাচ্ছে, ৩০০টি পরিবর্তন সাপেক্ষে ভারতের সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন (সিবিএফসি) এটিকে ছাড়পত্র দিয়েছে। তুমুল বিতর্কের কেন্দ্রে থাকা এই ছবি মুক্তি পাচ্ছে আগামী ২৫ জানুয়ারি।

ভারতের ট্যাবলয়েড মুম্বাই মিরর জানিয়েছে, ‘পদ্মাবত’ থেকে দিল্লি, চিত্তোরগড় ও মেওয়ারের সব প্রসঙ্গ বাদ দিতে বলা হয়েছে। এ কারণে সব মিলিয়ে ৩০০টি পরিবর্তন আনা দরকার ছিল। চিত্রনাট্যে মোট ৩০০ বার ওই তিনটি শহরের কথা বলা হয়েছে।

যদিও ছবিটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ভায়াকম এইটিন মিডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড এ খবর অস্বীকার করেছেন। তাদের দাবি, পাঁচটি পরিবর্তনের পরামর্শ দিয়েছে সিবিএফসি। এজন্য সেন্সর বোর্ডের সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছ প্রক্রিয়ার প্রশংসা করেন তারা। তাদের একজন মুখপাত্র বলেন, ‘অচলাবস্থা নিরসনে সিবিএফসির সুষ্ঠু ও চিন্তাশীল পদক্ষেপ প্রশংসার দাবি রাখে।’

জানা গেছে, অপ্রাপ্তবয়স্ক (ইউ/এ) সনদ পেতে পাঁচটি পরিবর্তন আনার জন্য বলেছিল সিবিএফসি। এর মধ্যে অন্যতম ‘পদ্মাবতী’ থেকে ছবির নাম ‘পদ্মাবত’ রাখা। ঐতিহাসিক সত্যতা দাবি ও ছবিটির চরিত্রকে কোনোভাবে সতী হিসেবে উপস্থাপন না করার জন্যও বলা হয়। এছাড়া ‘ঘুমর’ গানে রানি পদ্মিনীকে ঐতিহাসিক স্থানের সঙ্গে যুতসই মনে না করায় পরিবর্তন আনার পরামর্শ দেয় সিবিএফসি। পরিচালক বানসালি ও প্রযোজকরা এসব পরিবর্তন মেনে নিয়েছেন।

সিবিএফসি চেয়ারম্যান গীতিকার প্রসূন জোশি ব্যাখ্যা করে জানান, নামসহ পাঁচটি পরিবর্তনের পরামর্শ দিয়েছেন তারা। আর কোনও কর্তন করা হয়নি বলে দাবি তার। সংবাদ সংস্থা আইএএনএস’কে তিনি বলেছেন, ‘পাঁচটি পরিবর্তন এনে ছবিটির চূড়ান্ত সংস্করণ জমা দিয়েছেন নির্মাতারা। আমরাও ইউ/এ সনদ দিয়েছি। আমাদের প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে গেছে। এর বাইরে কাটাকাটির কোনও খবরই সত্যি নয়। অযথা সিবিএফসির নাম ব্যবহার করা ঠিক নয়।’

ঐতিহাসিক ঘটনা নিয়ে বিতর্কিত ও তুমুল আলোচিত ছবি পদ্মাবত মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল গত বছরের ১ ডিসেম্বর। কিন্তু রাজপুত সম্প্রদায়ের বিরোধিতার মুখে ছবিটির মুক্তি স্থগিত হয়ে যায়। রাজস্থান, গুজরাট, উত্তর প্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ ও পাঞ্জাবে ছবিটি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ অবস্থায় অসম্পূর্ণ আবেদনের কারণে ছবিটি ফেরত দেয় সিবিএফসি। এ কারণে গত ১৯ নভেম্বর ছবিটির মুক্তি স্থগিত করা হয়। এরপর ২৮ ডিসেম্বর বেশকিছু পরিবর্তন সাপেক্ষে সিবিএফসি সনদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

এদিকে ‘পদ্মাবত’কে ছাড়পত্র দেওয়ায় শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) সকালে সিবিএফসি কার্যালয় ঘেরাও করেছে কার্নি সেনার নেতাকর্মীরা। এ সময় নেতৃত্ব দেন সংগঠনটির সভাপতি সুখদেব সিং গোগামেদি। তিনি সিবিএফসির চেয়ারম্যানের পদত্যাগ দাবি করেছেন। ছবিটি মুক্তির দিন ‘জনতা কারফিউ’র ডাক দিয়েছে কার্নি সেনার প্রধান লোকেন্দ্র সিং কালভি।

মালিক মোহাম্মদ জয়সীর কবিতা ‘পদ্মাবত’ অবলম্বনে সাজানো হয়েছে ছবিটির চিত্রনাট্য। এতে রানি পদ্মিনী চরিত্রে অভিনয় করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন। রণবীর সিংকে দেখা যাবে পদ্মিনীর রাজ্যে আক্রমণ চালানো আলাউদ্দিন খিলজির ভূমিকায়। আর শহিদ কাপুর আছেন রাজা মহারাওয়াল রতন সিং হিসেবে। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস, জি নিউজ, টাইমস অব ইন্ডিয়া

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.