ভারতের মাটিতে টেস্ট: বাংলাদেশের দীর্ঘ অপেক্ষা কেন?

ভারতে একটি মাত্র টেস্ট খেলার উদ্দেশ্যে আজ বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল ঢাকা ছাড়ছে ।
বাংলাদেশ বাংলাদেশ ক্রিকেট দল টেস্ট খেলার মর্যাদা পেয়েছিল ২০০০ সালে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশের পক্ষে ভারতের সহায়ক ভূমিকাও ছিল উল্লেখযোগ্য।
কিন্তু প্রতিবেশী সেই দেশটিতেই বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে কিংবা টি টোয়েন্টি কোনও ফরম্যাটেই দ্বিপক্ষীয় সিরিজ অনুষ্ঠিত হয়নি আজও। টেস্ট ম্যাচ তো নয়ই।
বেশ কয়েকবারই ভারতের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট আসরের বিষয়ে কথাবার্তা শোনা গেছে ঠিকই। অবশেষে হায়দ্রাবাদে আগামী ৯ই ফেব্রুয়ারি শুরু হবে দুই দেশের প্রথম ও একমাত্র টেস্ট ম্যাচটি।
কিন্তু বাংলাদেশকে আমন্ত্রণ জানাতে ভারতের সময় লেগেছে ১৬ বছর।
প্রতিবেশী ভারতে এই ম্যাচের জন্য এত দীর্ঘ সময় লাগলো কেন?
বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক ক্রিকেট অপারেশন্স কর্মকর্তা এবং বিসিবির ওয়ার্কি কমিটির চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন সিরাজ বলেন, “আমাদের আসলে সফর-সূচি খুব কম থাকে বাইরে খেলার। ভারত কেন অনেক দেশের সাথেই খেলতে যতে পারি না। আমাদের দেশে সবাই এসে খেলে”।
তিনি আরও উল্লেখ করেন, “আমরা ধারাবাহিকভাবে পারফর্ম্যান্স করতে পারছি না বিশেষ করে টেস্টে। একটা দলকে পুনর্গঠিত করতে দীর্ঘ সময় লাগে। এখানে আমাদের সাথে একটি পার্থক্য আছে। এই কারণে সফরসূচিগুলো টেস্ট খেলার জন্য অন্যান্য দেশ দিতে পারেনা”।
কিন্তু অনেক দেশেই যেখানে বাংলাদেশ দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলে এসেছে ইতোমধ্যে। সেখানে ভারতের মাটিতে খেলার আমন্ত্রণ পেতে কি সমস্যা ছিল?
মিস্টার হোসেন এক্ষেত্রে আইসিসির দায়িত্বের বিষয়টি তুলে ধরেন।
“আমরা যদি ট্যুর প্রোগ্রামের মধ্যে যদি আমরা না থাকি তাহলে কিভাবে ওখানে যাবো? এটা আইসিসির ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। আইসিসি সফর-সূচি নির্ধারণ করে। ট্যুর প্ল্যানের চক্রে যদি আমরা না ঢুকতে পারি তাহলে তো যেতে পারবো না”।
অতীতে বাংলাদেশের সাথে ভারতে খেলাকে ঘিরে ভারতের তরফ থেকে লোকসানের আশঙ্কার কথা শোনা গেছে। এ বিষয়ে অবশ্য মিস্টার হোসেন বলেন, তেমন কিছু তাদের জানা নেই।
বাংলাদেশ গতবছরই ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টি খেলতে ভারতে গিয়েছিল।
শেষপর্যন্ত ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ টেস্ট খেলতে যাচ্ছে ঠিকই তবে কেবল একটি মাত্র টেস্ট ম্যাচই খেলবে দুই দল। সাধারণত বিভিন্ন দেশে সফরে তিনটি ফরম্যাটেই ম্যাচ হয়ে থাকে। কিন্তু ভারতে সংক্ষিপ্ত সফর-সূচিতে ওয়ানডে কিংবা টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের কোনও খেলাই অন্তর্ভুক্ত নেই।
বিষয়টিকে তবুও ইতিবাচক হিসেবেই দেখতে চাইছেন বোর্ডের কর্মকর্তারা। এনায়েত হোসেন সিরাজও তেমনটাই উল্লেখ করেন। তার ভাষায় “শুরুটা তো হল। ভাল খেলতে পারলে আমরাও তাদের সফরসূচিতে ঢুকতে পারবো”।
এদিকে বুধবার ভারত ও বাংলাদেশ এই টেস্টকে ঘিরে দল ঘোষণা করেছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.