‘মাফলার ম্যান’ থেকে টানা তিন বার দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী

২০১২ সালের নভেম্বরে যখন জনসমক্ষে এল আম আদমি পার্টি, তখনও কি কেউ ভেবেছিল নতুন এই দলটা আগামী আট বছরে ইতিহাস গড়বে? শুধু কি ইতিহাস গড়া, উল্টে দেবে সব হিসেব নিকেশ? কোনও রাজনৈতিক পরিচিতি ছাড়াই একটি রাজনৈতিক দল প্রতিষ্ঠা করাই শুধু নয় কংগ্রেস, বিজেপি-র মতো বর্ধিষ্ণু দলকে পিছনে ফেলে পর পর তিন বার আসবেন দিল্লির ক্ষমতায়।

অতি বড় আশাবাদীও বোধহয় ভাবেননি গলায় মাফলার, গায়ে সোয়েটার পরা ওই মানুষটা নাকানি চোবানি খাওয়াবেন রাজধানীর তাবড় পোড় খাওয়া রাজনীতিককে। খড়্গপুর আইআইটি, টাটা স্টিলের লোভনীয় চাকরি ছেড়ে কী ভাবে সমালোচকদের বিদ্রুপের ‘মাফলার ম্যান’ হয়ে উঠলেন দিল্লির কনিষ্ঠতম মুখ্যমন্ত্রী।

এক্সিট পোলেই পরিস্কার হয়ে গিয়েছিল যে ফের একবার দিল্লি মসনদে বসতে চলেছেন কেজরিওয়াল। কিন্তু এরপরেই বিজেপি নেতৃত্বের একাংশের ধারণা ছিল হয়তো শেষমুহূর্তে খেলা ঘুরবেই। দিল্লি দখল করবে বিজেপিই। কিন্তু আজ মঙ্গলবার সকাল থেকে যা ট্রেন্ড তাতে পরিস্কার দিল্লিতে হ্যাট্রিক পথে কেজরিই। আর ট্রেন্ড দেখেই হার মেনে নিল বিজেপি? অন্তত নজিরবিহীনভাবে দিল্লিতে বিজেপির সদর দফতরে যেভাবে হোডিং পড়ল তাতে এই প্রশ্নটাই এখন ঘুরপাক খাচ্ছে রাজনৈতিকমহলে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আজ মঙ্গলবার সকালে ২১টি কেন্দ্রে ভোট গণনা শুরু হয়েছে। গণনায় আম আদমি ৫০টির বেশি আসনে এগিয়ে রয়েছে। বিজেপি এগিয়ে রয়েছে ১৬টি আসনে।

সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্যে প্রয়োজন ৩৬টি আসন।