‘মুহাম্মদ’ (স.) চলচ্চিত্রের জন্য গড়া হয় মক্কার প্রতিরূপ

 নানা আলোচনা আর সমালোচনার জন্ম দিয়ে অবশেষে মুক্তি পেয়েছে ইরানের বিখ্যাত পরিচালক মাজিদ মাজিদির ছবি ‘মুহাম্মদ (স.) : দ্য মেসেঞ্জার অব গড’। দীর্ঘ সাত বছর গবেষণা করে, শিয়া আর সুন্নি আলেমদের সঙ্গে আলোচনা করে, বিপুল পরিমাণ সরকারি অর্থ ব্যয় করে চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করেছেন মাজিদি। তাই এই চলচ্চিত্রের সঙ্গে তৈরি হয়েছে বিরাট সব ইতিহাস।

স্ক্রল ডট ইনের এক প্রতিবেদন বলছে, ছবির বেশির ভাগ অংশের শুটিং হয়েছে ইরানের ‘কম’ শহরে। কিছু দৃশ্য ধারণ করা হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার শহর বেলা-বেলাতে। ‘কম’ শহরে তো রীতিমতো ছবির পটভূমির সময়কার মক্কা নগরীর পুঙ্খানুপুঙ্খ প্রতিরূপ (রেপ্লিকা) তৈরি করা হয়েছিল। পুরো ছবির চিত্রায়নের সময় গণমাধ্যমের দিকে কড়া নজর রাখা হয়েছিল। কোনো সংবাদকর্মী বা গণমাধ্যমের প্রবেশাধিকার ছিল না ছবির সেটে।

ছবির সেটের বিষয়ে মাজিদি জানান, ছবির প্রয়োজনে তেহরানের কাছের শহর কমে পুরো মক্কা নগরীর সেই সময়কার রেপ্লিকা তৈরি করা হয়েছিল। খুব ছোট ছোট বিষয়গুলোও নজরে রাখা হয়েছিল।

পুরো ছবির শুটিং শেষ হওয়ার পর এর বিভিন্ন দৃশ্যের স্থিরচিত্র প্রকাশ করা হয় ছবির প্রযোজনা সংস্থার পক্ষ থেকে। সেখানে দেখা যায়, মহানবী হজরত মুহাম্মদ (স.)-এর সময়ে কাবাঘরের অবস্থা, সেই সময় মক্কার পরিবেশ, ঘরবাড়ি, বাজার, আসবাব সবকিছু পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পর্দায় ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। পোশাকের মাধ্যমেও সেই সময়ের আবহ তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে।

এ ছাড়া ছবির কিছু দৃশ্যের জন্য পুরো দল নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার লিমপুপু প্রদেশের বেলা-বেলা শহরে গেছেন মাজিদি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.