‘মেরুদণ্ডহীন ইসি, সবার মুখে ছিঃ ছিঃ’

প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) লজ্জায় মরে যাওয়া উচিত বলে মন্তব্য করে সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি অধ্যাপক ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, ‘এই ইসি মেরুদণ্ডহীন।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিব উদ্দিন বলেছেন, আগামী নির্বাচনে ট্যাঙ্ক লাগবে, তার এ বক্তব্যের পর পদত্যাগ করা উচিত। ইসির আচরণে ক্ষুব্ধ অনেকেই ছিঃ ছিঃ করছেন।’

রোববার দুপুরে কাকরাইল ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে বাংলাদেশ মুসলিম লীগের ৮ম জাতীয় কাউন্সিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন সাবেক এই রাষ্ট্রপতি।

কাউন্সিল উদ্বোধন করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগেডিয়ার (অব.) আ স ম হান্নান শাহ।

বি. চৌধুরী বলেন, ‘রাজনৈতিকভাবে ইউপি নির্বাচন করে সরকার ঘরে ঘরে বিবাদ ছড়িয়ে দিয়েছে। ১১২ জন মানুষের মৃত্যুর দায় এ সরকার ও নির্বাচন কমিশনকেই বহন করতে হবে।’

দেশে আমেরিকা, যুক্তরাজ্যের আদলে সরকারের মেয়াদ চার বছর করার দাবি জানিয়ে এম বদরুদ্দোজা বলেন, ‘শেষ তিন মাস নির্দলীয় সরকারের হাতে ক্ষমতা দিয়ে দিতে হবে নির্বাচনের জন্য। তাহলে দেশে দুর্নীতি কমে আসবে।’

তিনি বলেন, ‘অনির্বাচিত হওয়ায় সরকার গণতান্ত্রিকভাবে দেশ পরিচালনা করছে না, কিন্তু এজন্য একদিন তাদের অনুশোচনা করতে হবে। তিনি সরকারকে গণতন্ত্রের পথে ফিরে আসার আহ্বান জানান।’

জনগণকে আন্দোলনে নামার আহ্বান জানিয়ে বি. চৌধুরী বলেন, ‘অনেক ক্ষমা করেছেন, আর নয়, এবার প্রতিবাদ-প্রতিরোধের সময় এসেছে। সবাইকে রাজপথে নেমে আসতে হবে।’

বাংলাদেশ মুসলিম লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল আজিজ হাওলাদারের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী ও মাওলানা আব্দুর রকির অ্যাডভোকেট, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, ইসলামী আন্দোলনের ঢাকা মহানগর আমীর মাওলানা এ টি এম হেমায়েত উদ্দিন, বাংলাদেশ মুসলিমলীগের মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের, মুসলিমলীগের মহাসচিব আতিকুল ইসলাম, জোবায়দা কাদের চৌধুরী প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.