রানী এলিজাবেথের পরে কে?

ব্রিটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের শারীরিক অবস্থা খুব-একটা ভালো নয়। এবং তা এমন যে, গত বড়দিনের কয়েকটি অনুষ্ঠানে তাঁর যাওয়ার কথা থাকলেও তিনি যেতে পারেননি। এ অবস্থায় প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে যে, কে হচ্ছেন ব্রিটিশ সিংহাসনের পরবর্তী উত্তরাধিকারী?

এছাড়া এমন গুজবও ছড়িয়ে পড়ে যে, ৯০ বছর রানী পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন এবং নতুন রানী হচ্ছেন তাঁর নাতবৌ কেইট মিডলটন। প্রিন্স উইলিয়াম ও প্রিন্সেস কেইট গত কয়েক মাসে রাজকীয় দায়িত্বের বেশিরভাগ নিজেদের হাতে তুলে নিয়েছেন বলেও গুজব রয়েছে। নতুন বছরের শুরুতে তাদের নরফোক থেকে লন্ডনে চলে আসার সিদ্ধান্তও সেই গুজবের পালে ভালোই হাওয়া দিয়েছে।

তবে গুজব যা-ই হোক, রানী অবসর গ্রহণ করলে কিংবা মারা গেলে প্রিন্সেস কেইটের রানী হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই নেই। সেক্ষেত্রে প্রচলিত রীতিমাফিক প্রিন্স চার্লসেরই রাজা হওয়ার কথা। তবে তিনি রাজা হলেও তাঁর পত্নী ক্যামিলা রানী হবেন না। কারণ, স্ত্রী (প্রিন্সেস ডায়ানা) থাকা অবস্থায় প্রিন্স চার্লস তার (ক্যামিলা) সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়েছিলেন।

পরবর্তী রাজা হওয়ার দৌড়ে দ্বিতীয় স্থানে আছেন প্রিন্স চার্লসের বড় ছেলে প্রিন্স উইলিয়াম। তৃতীয় স্থানে আছেন প্রিন্স উইলিয়ামের বড় ছেলে প্রিন্স জর্জ আলেকজান্ডার লুইস এবং চতুর্থ স্থানে আছেন প্রিন্স উইলিয়ামের মেয়ে প্রিন্সেস শারলট। এই ধারাক্রমে কোথাও প্রিন্সেস কেইটের নাম নেই। ফলে সব রকম গুজব সত্ত্বেও এটা নিশ্চিত যে, প্রিন্সেস কেইটের রানী হওয়া হচ্ছে না।

আর ব্রিটেনে এটাই প্রচলিত নিয়ম যে, রাজা বা রানী হন পূর্ববর্তী রাজা বা রানীর পুত্র বা কন্যা। রাজা ষষ্ঠ জর্জের পুত্রসন্তান না থাকায় তিনি তাঁর বড় কন্যা এলিজাবেথকে (বর্তমান রানী) সিংহাসন দিয়ে যান। এছাড়া সম্ভাব্য ঝামেলা এড়াতে ২০১১ সালে প্রিন্স জর্জের জন্মের আগে সিংহাসনে ছেলে না মেয়ে উভয়েই বসতে পারার বিধান করা হয় । সূত্র : আইবিটি

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.