শীতে ঠাণ্ডা পানিতে সুস্থতা

শীতকাল এলেই আমাদের ভয়ের কারণ ঠান্ডা পানি। তাই আমরা প্রায় সকলেই শীতকালে ঠান্ডা পানিকে দূরে সরিয়ে রেখে গরম পানিকে সঙ্গী করে নিই৷ কিন্তু এই ঠান্ডা পানিই শীতকালে আপনাকে রাখবে চনমনে৷ আমরা হয়ত অনেকেই জানি না শীতকালে ঠান্ডা পানি কতটা উপকারি৷ আসুন জেনে নেয়া যাক শীতকালে ঠান্ডা পানি আপনাকে কতটা সুস্থ রাখবে৷
১। রক্তে শ্বেত কণিকা বাড়াতে সাহায্য করে ঠান্ডা পানি। ঠাণ্ডা পানিতে গোসল করার ফলে ত্বকও ঠান্ডা হয়ে পড়ে। ফলে তা গরম করার জন্য ত্বক নিজেই তাপ উৎপাদন করতে শুরু করে। এই তাপ উৎপাদনের সময় শ্বেত রক্ত কণিকা জন্মাতে থাকে। যা রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে। এই সময় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা না বাড়লে সর্দি, কাশির মতো সমস্যা দেখা যায়।
২। এই ঠান্ডা পানিই আমাদের পুরনো ব্যথা কমাতে সাহায্য করে৷ শুধু তাই নয় চুলকানি দূর হয়, চুলের শ্রীবৃদ্ধি, দেহের অবাঞ্ছিত উত্তেজনা প্রশমন করা, স্নায়ুর দুর্বলতা দূর করতেও সাহায্য করে৷
৩। গরম পানি ত্বকের জন্য একেবারেই ভালো না। শীতকালে এমনিতেই ত্বক ও চুল রুক্ষ হয়ে যায়। আর ঠান্ডার হাত থেকে বাঁচতে অনেকেই গরম পানিতে গোসল করেন। কিন্তু গরম পানি ত্বক ও চুলকে আরও রুক্ষ করে তোলে। তাই নিজের চুল ও ত্বকের কথা চিন্তা করে ঠান্ডা পানিতে গোসল করাই ভালো।
৪। ক্লান্তি দূর করতে সাহায্য করে ঠান্ডা পানি। সারাদিন কাজ করার পর হয়তো গরম পানিতে গোসল করে অনেকেই আরাম পান। কিন্তু, ক্লান্তি দূর করে শরীরকে চনমনে করে তুলতে অনেক বেশি সাহায্য করে ঠান্ডা পানি
৫। যারা রাতে ঘুমের সমস্যায় ভোগেন তারা শীতে ঠান্ডা পানি ব্যবহার করলে উপকার পাবেন৷ দেহের স্বাচ্ছন্দ্য ফিরিয়ে আনতে শীতে ঠাণ্ডা পানির ব্যবহার খুব ফল দায়ক৷

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.