সময় দিন নিজেকে…

আশিকুর রহমান চৌধুরী।

পুরোটা দিনই কেটে যায় বিভিন্ন কাজে। এছাড়া বন্ধু ও আত্মীয়স্বজনদের সময় দেওয়া কিংবা অন্যান্য ব্যস্ততা তো রয়েছেই। এসবের ফাঁকে নিজেকে সময় দেওয়া হচ্ছে কতটুকু? একা থাকা মানেই যে খুব কষ্টকর কিছু- বিষয়টা মোটেও এমন নয়। বরং মাঝে মাঝে একাকী থাকাটাও জরুরি।

দৈনন্দিন ব্যস্ততা মস্তিষ্কে চাপ তৈরি করে। এজন্য দিনের নির্দিষ্ট সময় একা থাকুন। এ সময়ে নিজের যা ভালো লাগে সেটাই করুন। দেখবেন ক্লান্তি দূর হবে অনেকটাই। বারান্দা, ছাদ অথবা প্রিয় কোনও স্থানে নিজের মতো সময় কাটাতে পারেন। সম্ভব হলে কিছুদিনের জন্য ছুটি নিয়ে দূরে কোথাও চলে যেতে পারেন। এতে ক্লান্তি দূর হবে ও কাজের স্পৃহা বাড়বে।

নির্জনতা জীবনকে সহজ করে। গবেষণায় দেখা গেছে, আমরা যখন সময় একা থাকি তখন আমাদের মস্তিষ্ক ফলপ্রসূ সিদ্ধান্ত তৈরি করতে পারে। এতে অনেক ধরনের জটিল সমস্যার সমাধান করা সম্ভব হয়। সারাদিন কী কী করলেন, আপনার দিনের পরিকল্পনা কতটুকু সফল হলো, কতটুকু অসম্পূর্ণ থাকলো, সফল হতে আর কী করা যেতে পারে- এগুলো চিন্তাভাবনা ও সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় দিনের এ ভাগটাই। এসব ছাড়াও সম্পর্কের জটিলতা ও সমস্যাগুলো সমাধানের পথ হতে পারে গুরুত্বপূর্ণ এ সময়টি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.