সাধারন তেজপাতার অসাধারন জাদুকরী ব্যাবহারে হলদে দাঁতকেও করে ফেলুন ঝকঝকে সাদা!

সাধারন তেজপাতার অসাধারন জাদুকরী ব্যাবহারে হলদে দাঁতকেও করে ফেলুন ঝকঝকে সাদা!

মানুষকে কখন সবচেয়ে সুন্দর দেখায় বলুন তো? মানুষ যখন হাসে তখন তাকে সবচেয়ে সুন্দর দেখায়। আর ঝকঝকে সাদা দাঁত হাসির আকর্ষণ অনেকটাই বাড়িয়ে দেয়। ভাবছেন ঝকঝকে মুক্তার মত সাদা দাঁত পেতে তো অনেক খরচ করতে হয় ডাক্তারের কাছে গিয়ে, তাই না?

ঝকঝকে সাদা দাঁত মানুষের গুরুত্বপূর্ন অঙ্গ গুলির মধ্যে অন্যতম এবং এটি আপনার অহংকার। দাঁত আপনার আত্মবিশ্বাস। তাই দাঁত সুন্দর রাখার ব্যাপারে নো কমপ্রোমাইজেশন।

দাঁত থাকতে দাঁতের মর্ম আসলেই কেউ বোঝেন না। যখন অবহেলায় এবং অযত্নে দাঁত ক্যাভিটি, দাঁতের ক্ষয় এবং হলদেটে ভাব চলে আসে তখনই আমাদের হুঁশ হয়। প্রাকৃতিক উপায়ে হলদে দাঁতগুলোকে ঝকঝকে সাদা সুন্দর করার সহজ উপায় যা অনেকেরই  জানা নেই। দামী টুথপেস্ট থেকে শুরু করে ডেন্টিস্টের কাছে দামী ট্রিটমেন্ট করেও হলদে দাঁতগুলো আর সাদা হয় না । অথচ সাধারন তেজপাতা দিয়েই সুন্দর করে নিতে পারবেন আপনি আপনার দাঁতগুলো?  কিন্তু কীভাবে?

চলুন, জেনে নিন দাঁত সুন্দর করতে তেজপাতা ব্যবহারের প্রণালি।

দাঁত সাদা করতে তেজপাতা দারুণ উপকারী, তবে এই তেজপাতাকে মেশাতে হবে কোন টক ফলের সাথে। যেমন ধরুন কমলা বা লেবুর খোসা।

যা যা লাগবে
তেজপাতা ৪টি (কাঁচা বা শুকনো সব রকমেই হবে)
কমলা ও লেবুর খোসা (তেজপাতার সম পরিমাণ)
মুখে দুর্গন্ধের সমস্যা বা মাড়িতে ব্যথা থাকলে লবঙ্গ ২/৩ টি

প্রণালি
১। তেজপাতা বেটে নিন বা মিহি গুঁড়ো করে নিন।
২। কমলা বা লেবুর খোসা শুকিয়ে লবঙ্গের সাথে মিশিয়ে গুঁড়ো করে নিন।
৩। সব উপকরণ সামান্য লবণ সহযোগে একত্রে মিশিয়ে নিন।
৪। ফলের খোসা শুকিয়ে নেয়া জরুরী। কাঁচা অবস্থায় দাঁতের ক্ষতি করবে।

ব্যবহার বিধি
এই গুঁড়োটি সামান্য পানির সাথে মিশিয়ে সপ্তাহে ৩ দিন দাঁত মাজুন। রোজ মাজার প্রয়োজন নেই, এতে দাঁতের ক্ষতি হতে পারে। দাঁতের হলদে ভাবের ওপর নির্ভর করে সপ্তাহে দুই থেকে তিন বার ব্যবহার করাই যথেষ্ট

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.